Connect with us

ঢাকা

পেরিওডোন্টোলজি ও ওরাল প্যাথোলোজি’র উপর ৫ দিনের হ্যান্ডস অন ট্রেনিং

নিজস্ব প্রতিনিধি

Published

on

Dental Times

ফাইরুজ হাফিজা হুমা

গত ১০-১৪ জানুয়ারি, পেরিওডোন্টোলজি ও ওরাল প্যাথোলোজি এর উপর ৫ দিনের হ্যান্ডস অন ট্রেনিং প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়েছে ঢাকা ডেন্টাল কলেজ হসপিটালে।

ট্রেনিংটিতে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন হেলথ এডুকেশন এন্ড ফ্যামিলি ও ওয়েলফেয়ার ডিভিশন এর সচিব মোঃ আলি নূর, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন ডাইরেক্টরেট জেনারেল অফ মেডিকেল এডুকেশন এর পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ এএইচএম এনায়েত হোসেন, অধ্যাপক ডাঃ নাজমুল ইসলাম । এছাড়া উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ডাঃ আবুল কালাম জর্দার, অধ্যাপক ডাঃ জালাল উদ্দিন মাহমুদ, অধ্যাপক ডাঃ সালাহউদ্দিন আহমেদ, ডাঃ মো. মোখলেসুর রহমান ।

এই “হ্যান্ডস অন ট্রেনিং” প্রোগ্রামে ৪টিরও বেশি কলেজের পোস্ট গ্রাজুয়েশন ট্রেনিংয়ের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত আয়োজনটি চলে। প্রথম দিনের উল্লেখিত বিষয় ছিলো, সায়েন্টিফিক সেশন, হ্যান্ডস অন জিনজাইভেক্টমি অর ক্রাউন লেন্দিনিং, ভেস্টিবুলোপ্লাস্টি রুট কভারেজ, ইনাগুরেশন এন্ড সায়েন্টিফিক সেশন। এর বক্তা হিসেবে ছিলেন অধ্যাপক ডাঃ অনির্বান চ্যাটার্জি ও ডাঃ এ. ভি. অরুন। দ্বিতীয় দিন, তৃতীয় দিনে এবং চতুর্থ দিনের উল্লেখিত বিষয় ছিলো যথাক্রমে- “সায়েন্টিফিক সেশন, গাম রিসেশন, ফ্ল্যাপ সার্জারি, রিজ অগমেনশন”,“ ফ্ল্যাপ সার্জারি, রুট কভারেজ, ডেন্টাল ইমপ্লান্ট”, “ফিক্সেশন, ক্রাউন লেন্দিনিং, জিনজাইভেক্টমি”। এছাড়া পঞ্চম দিনের বিষয় ছিলো “সায়েন্টিফিক সেশন, ফালকারশন ট্রিটমেন্ট, লিপ রিপোজিং, ডেন্টাল ইমপ্লান্ট”

এই হ্যান্ডস অন ট্রেনিং প্রোগ্রামটির কো-অরডানেটর ছিলেন ঢাকা ডেন্টাল কলেজ অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ হুমাইয়ুন কবির বুলবুল , ফোকাল পারসন হিসেবে ছিলেন ঢাকা ডেন্টাল কলেজের প্যারিওডন্টোলজি ও ওরাল প্যাথলজি বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ অনুপম পোদ্দার। ফরেন ট্রেনিং উইং,এমই-এইচএমডি,ডিজিএমই এই কোর্সটি আয়োজন করে।

Advertisement
Click to comment

জাতীয়

উত্তরাধিকার বলে মামার পর ‘ভাগ্নে’ও এখন চিকিৎসক !

DENTALTIMESBD.com

Published

on

Dental Times

পাস করে নয়, আবার ট্রেনিং নিয়েও নয়। চট্টগ্রাম নগরীজুড়ে অন্তত শতাধিক ‘দাঁতের ডাক্তার’ আছেন, যারা ‘ডাক্তার’ সেজে বসেছেন উত্তরাধিকার সূত্রে কিংবা ‘দেখে দেখে’। মুদি দোকানের কর্মচারী কিংবা ক্লিনিকের পিয়ন যেমন দেখে দেখে ‘ডাক্তার’ বনে গেছেন, তেমনি ‘ডাক্তার’ দাদার চেয়ারে এখন নাতনিই ডাক্তার সেজে বসছেন, বাবার পর ছেলে নিয়েছেন ‘ডাক্তারির’ গুরুদায়িত্ব। পারিবারিক এই অদ্ভূত চিকিৎসা-ব্যবসায় মামার চেম্বারে ভাগ্নে, চাচার ক্লিনিকে ভাতিজাই রীতিমতো ডাক্তার বনে ‘দাঁতের চিকিৎসা’ দিয়ে চলেছেন।

এদের বেশিরভাগই পারিবারিক সম্পর্কের সূত্র ধরে এখন ‘দন্ত চিকিৎসক’— সাধারণভাবে ‘ডেন্টিস্ট’ হিসেবেই পরিচিতি তাদের। একই পরিবার থেকে উত্তরাধিকারসূত্রে আসা এসব ‘ডেন্টিস্ট’ চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন স্থানে করে যাচ্ছেন দন্তচিকিৎসার রমরমা ব্যবসা। চট্টগ্রাম নগরীর লালদিঘি, পতেঙ্গা, ইপিজেড, আগ্রাবাদ, চকবাজার, মুরাদপুর, জামালখানসহ নগরীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলোতে এরকম বহু কথিত ডেন্টিস্টের খোঁজ মিলেছে— চিকিৎসার নামে যারা দাঁতের রোগীদের পকেট কাটছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এদের বেশিরভাগেরই শিক্ষাগত যোগ্যতা বড়জোর এসএসসি। কয়েকজন আছেন এইচএসসি পাশ। অনেকে আবার স্কুলের গণ্ডিও পেরোতে পারেননি। কিন্তু তারাই ‘দাঁতের ডাক্তার’ সেজে নগরীতে সাধারণ মানুষকে চিকিৎসার নামে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।

এদের অপচিকিৎসার শিকার হয়ে দাঁতের চিকিৎসা করাতে এসে সহজ-সরল অনেক মানুষ ট্রান্সমিশন ডিজিসের শিকার হয়ে আক্রান্ত হচ্ছেন হেপাটাইসিস বি ও সি-তে।

দাদার চেম্বারে নাতনিই ‘ডেন্টিস্ট’

নগরীর লালদিঘি জেবি টাওয়ারের সরু গলির মধ্যে দোকান সাজিয়ে বসেছে ‘সুমন ডেন্টাল ক্লিনিক’। ছোট দুটি ঘরের একটিতে রোগী বসার জায়গা। অন্যটিতে রোগী দেখেন সুপ্রিয়া দেবী। তিনি সুমন ডেন্টাল ক্লিনিক মালিক সুমনের নাতনি। এইচএসসি পাস করার পর ফিরিঙ্গিবাজারের ইনস্টিটিউট অফ হেলথ টেকনোলজির অধীনে ৪ বছরের ডিপ্লোমা কোর্স শেষে তিনি এখন দাঁতের চিকিৎসা দিচ্ছেন। সুপ্রিয়া দেবীর সহকারী টিনা চৌধুরী। নবম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা তার। দাঁত বাঁধানো, ক্যাপ, ব্রিজ, ক্যাপল, স্ক্যানিং, ফিলিংসহ আকাবাঁকা দাঁতের চিকিৎসা করা হয় সুমন ডেন্টাল ক্লিনিকে— জানান সুপ্রিয়া দেবী।

সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) দুপুর দেড়টায় ওই ‘ডেন্টাল ক্লিনিকে’ গিয়ে দেখা গেল, আজাদ নামে একজন এসেছেন দাঁতের রুট ক্যানেল করাতে। সুপ্রিয়া দেবী জানান, রুট ক্যানেলে খরচ পড়ে প্রথমে ৩ হাজার টাকা। এটি করতে রোগীকে ৪ থেকে ৫ বার আসতে হয়। প্রথমে দাঁত ওপেন বা খোলা, তিনদিন পর ড্রেসিং, দ্বিতীয় বার এক্সরে করা হয়। এরপর পর্যায়ক্রমে রোগীদের ড্রেসিং, ক্যালসিয়াম ড্রেসিং, অ্যান্টিবায়েটিক ড্রেসিং দেওয়া হয়। তারপর রোগীর দাঁতে পরানো হয় ক্যাপ।

মুদি দোকানের চাকরি ছেড়ে ‘ডেন্টাল ক্লিনিক’

লালদিঘিতেই শুধু নয়, নগরীর অন্য জায়গাতেও আছে এমন দন্তচিকিৎসকের উপদ্রব। নগরীর আগ্রাবাদের চৌমুহনী ‘শেফা ডেন্টাল কেয়ারে’ দাঁতের চিকিৎসা দেন কামাল হোসেন। শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণী। তিনি আগে কর্ণফুলী মার্কেটে মুদি দোকানে সাড়ে চার হাজার টাকার বেতনে চাকরি করতেন তিনি। ওই মুদি দোকানের মালিকের মেয়ে জামাইয়ের ডেন্টাল ক্লিনিক ছিল লালদিঘিতে। ১৫-১৬ বছর আগে পরিচয়ের সেই সূত্র ধরে ওই ক্লিনিকে তার আসা-যাওয়া। সেখানে কিছুদিন হাতেকলমে শিখে তিনি চৌমুহনীতে ‘শেফা ডেন্টাল কেয়ার’ নামের ক্লিনিক খুলে বসেন। এখন তিনি দাঁত তোলা, বাধাই ও স্কেলিং ও ফিলিংয়ের কাজ করে থাকেন। তার ভিজিট প্রথমবার ৩০০ টাকা এবং পরে আসলে ২০০ টাকা।

নগরীর আসকারাবাদ পার হয়ে ঈদগাঁও কাঁচা রাস্তার মোড়ে ১০ বছর ধরে দাঁতের ডাক্তারি করছেন সুজা ইসলাম। তিনিও হাইস্কুলের গণ্ডি পেরোতে পারেননি। ঢাকায় এক ডেন্টাল কেয়ারে একসময় চা-পানি আনার কাজ করতেন। সেখানে থাকতে থাকতেই তার দাঁতের ডাক্তার হওয়া— জানান সুজা ইসলাম। ছোট্ট একটা ঘরে বসে রোগী দেখেন তিনি। রোগীদের দাঁত তোলা ও বাঁধাইয়ের কাজ করেন। পাশেই একটি মুদি দোকান। সেটি তার ছোট ছেলে রায়হানের।

মামার পর ভাগ্নেও এখন ‘ডাক্তার’

লালদিঘি পাড়ের সুমন ডেন্টাল ক্লিনিকের পাশেই প্রাইম ডেন্টাল ক্লিনিক। এখানে ৭ থেকে ৮ বছর ধরে রোগী দেখেন রমেন বড়ুয়া। তিনি টেকনিশিয়ান। আগে এখানে ‘চিকিৎসা’ দিতেন দিলীপ চৌধুরী। দিলীপ সম্পর্কে রমেনের মামা। মামার পর এখন উত্তরাধিকারসূত্রে ভাগ্নে অবতীর্ণ হয়েছেন ডাক্তারের ভূমিকায়। রমেন বড়ুয়ার শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি পাস। তবে রমেন দাবি করেছেন, দাঁত বাঁধাই, রুট ক্যানেল, স্কিলিং, ফিলিংসহ দাঁতের যাবতীয় চিকিৎসার কাজই তিনি জানেন। তবে প্রাইম ডেন্টাল ক্লিনিকে দাঁতের চিকিৎসায় ব্যবহৃত প্রয়োজনীয় কোনো যন্ত্রপাতিই দেখা যায়নি।

অ্যানেসথেসিয়া দিয়ে ‘ডেন্টিস্ট’ দিলীপের আধঘন্টার অপেক্ষা

লালদিঘির এই একই মার্কেটে পাওয়া গেল দন্তচিকিৎসার আরও একটি দোকান— দন্তসেবা প্লাস ক্লিনিক। ঢাকা থেকে ডিপ্লোমা করেছেন দাবি করে এর মালিক দিলীপ বড়ুয়া জানান, এখানে বয়স্ক ব্যক্তিদের দাঁত তুলে দাত বাঁধানোর কাজ করা হয়। চিকিৎসা পদ্ধতি বলতে গিয়ে তিনি জানান, প্রথমে বৃদ্ধ রোগী আসলে তার রোগ সম্পর্কে জানেন। তারপর নিজেই অ্যানেসথেসিয়া (সার্জারির সময় অজ্ঞান করা) দিয়ে রোগীকে অজ্ঞান করেন। আধঘন্টা অপেক্ষা করার পর রোগীর শরীর অবশ হয়ে গেলে তিনি তখন বৃদ্ধ রোগীর দাঁত তুলে ফেলেন। তবে যেসব বয়স্ক ব্যক্তি মদ্যপান করেন, আনেসথেসিয়া দেওয়ার পরও তারা অজ্ঞান হন না বলে জানান ‘ডেন্টিস্ট’ দিলীপ। এমন রোগীদের তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। তবে অন্য রোগীদের জ্ঞান ফেরে ঘন্টাখানেক পর— এমন তথ্য জানিয়ে দিলীপ জানান, রোগীর জ্ঞান ফেরার পর রোগীর হাতে প্রেসক্রিপশন ধরিয়ে দেন তিনি। ৭ থেকে ১০ দিনের অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ লিখে দেন প্রেসক্রিপশনে। দুই মাস পর আবার রোগীকে আসতে বলেন। পরে রোগী আসলে তারপর রোগীর দাঁত বানিয়ে লাগিয়ে দেন মাড়িতে। পুরো এই চিকিৎসা প্রক্রিয়া চালিয়ে নিতে রোগীর কাছ থেকে বড় একটা অংকের অর্থ নেন বলে জানান দিলীপ বড়ুয়া। সাধারণত ১৫ থেকে ১৭ হাজারের মধ্যে দাঁতের এই চিকিৎসা হয়ে থাকে বলে জানান তিনি।

লালদিঘিতেই কেবল জনাত্রিশেক ‘দন্ত চিকিৎসক’

জানা গেছে, লালদিঘির পাড়ে ২৮ থেকে ৩০ জন টেকনিশিয়ান রয়েছেন যারা নিয়মিত দাঁতের রোগী দেখে থাকেন। তারা যে ছোট ঘরটাতে রোগী দেখেন তাকে ‘ক্লিনিক’ বলে চালালেও দাঁতের চিকিৎসায় যেসব যন্ত্রপাতি দরকার তার ন্যূনতম কিছুই নেই।

সরেজমিন ঘুরে এসব চেম্বারে আসা রোগীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অধিকাংশ টেকনিশিয়ান নিজেদের ‘ডেন্টিস্ট’ পরিচয় দিলেও কাজের কাজ তারা কিছুই বোঝেন না। রোগীকে রুট ক্যানেল না করিয়ে দাঁতের ক্যাপও লাগিয়ে দেন বলে অভিযোগ রোগীদের।

‘চীনা ডাক্তারের পুরাতন লোক’

লালদিঘির পশ্চিম পাড়ের স্মৃতি ডেন্টাল কেয়ারে রোগী দেখেন নুর হোসেন। তার ভিজিটিং কার্ডে লেখা তিনি সিভিল সার্জন কর্তৃক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। কার্ডে আরও লেখা নূর হোসেন মো. মানিক ‘চীনা ডাক্তারের পুরাতন লোক’।

আমানত ডেন্টাল কেয়ারে রোগী দেখেন মো. ইমরান। তার নেমপ্লেটে লেখা আছে ‘চাইনিজ ডাক্তার টেকনিশিয়ান’। এর কারণ ব্যাখা করতে গিয়ে ইমরান জানান, তার বাবা মোহাম্মদ ইউনুছ লালদিঘি মোড়ে চাইনিজ ডেন্টাল ক্লিনিকের টেকনিশিয়ান ছিলেন। তার বাবা মারা গেছেন ১০ থেকে ১২ বছর হবে। এসএসসিতে ফেল করার পর তিনি বাবার চেম্বারে বসতে শুরু করেন। দাঁত বাঁধাইয়ের কাজ করেন তিনি। যেসব রোগীর দাঁত পড়ে যায়, তাদেরকে তিনি ফলস (নকল) দাঁত লাগিয়ে দেন। প্রথমে দাঁতের আকৃতি নিয়ে ডাইস বানিয়ে রাসায়নিক পাউডার মিশিয়ে ফলস দাঁতগুলো গরম পানিতে সেদ্ধ করেন। এরপর দাঁত লাগিয়ে দেন রোগীকে।

‘এমবিভিডিএডিডি’ ডিগ্রি মানে ‘মেম্বার অব ভিলেজ ডক্টর’

লালদিঘির পশ্চিম পাড়ে নবগ্রহ বাড়ি মন্দিরের পাশে পূবালী ডেন্টাল ক্লিনিকে রোগী দেখেন জিকে বড়ুয়া। তার ভিজিটিং কার্ডে লেখা আছে ‘এমবিভিডিএডিডি’। জিকে বড়ুয়ার কাছ থেকে এর পূর্ণ রূপ হিসেবে জানা গেছে— ‘মেম্বার অব ভিলেজ ডক্টর’।

এই দোকানের ঠিক পাশেই পূরবী ডেন্টাল কেয়ারে রোগী দেখেন ডেন্টিস্ট প্রকৃত রঞ্জন বড়ুয়া। তিনি বলেন, এই চেম্বারটি আগে ছিল তার জেঠা বা বাবার বড় ভাইয়ের। জেঠার সহকারী হিসেবে তিনি কাজ করতে গিয়ে দাঁতের চিকিৎসা শিখে ফেলেছেন। তার ফি ৩০০ টাকা। তিনি দাঁত বাঁধাই, স্কেলিং ও ফিলিংয়ের কাজ করেন। শিক্ষাগত যোগ্যতা তার এসএসসি।

দূরত্ব ১০০ গজ, তবু নেই অ্যাকশন

সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে লালদিঘির দূরত্ব প্রায় ১০০ গজ। তবু কেন কথিত ডেন্টিস্টদের বিরুদ্ধে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হয় না— সে বিষয়ে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি জানান, ‘এর আগে কথিত ডেন্টিষ্টদের বিরুদ্ধে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে অ্যাকশনে যাওয়া হয়েছিল। মোটা অংকের টাকা জরিমানাও করা হয়েছিল। কিন্তু করোনার সময়ে বিভিন্ন ব্যস্ততার কারণে বিষয়টি নিয়ে কিছু করা হয়নি।’ তবে এদের বিরুদ্ধে আবারও ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি।

ট্রান্সমিশন ডিজিসের শিকার হচ্ছে অনেকেই

চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনাল ডেন্টাল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র সহকারী পরিচালক ডা. সরওয়ার কামাল মুঠোফোনে চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘ডাক্তার বলে দাবি করলেও এসব কথিত দাঁতের ডাক্তার যথাযথ চিকিৎসা জানে না। যেমন একজন রোগীর দাঁতে রুট ক্যানেল করা যাবে না। কিন্তু তারা সেটাই করে। অনেক ক্ষেত্রে রুট ক্যানেল না করেও প্রাথমিক পর্যায়ে ফিলিং করে দিলে হয়। কিন্তু তারা রুট ক্যানেল করায় কিছুদিন পর রোগীর ক্ষত স্থানে ইনফেকশন তৈরি হয়। পরবর্তীতে তা ছড়িয়ে পড়ে রোগীর মাড়িকে ক্ষতিগ্রস্থ করে।

তিনি বলেন, ‘লালদিঘী, পতেঙ্গা, ইপিজেড, আগ্রাবাদ, চকবাজার, মুরাদপুরসহ নগরীর যেখানে-সেখানে গড়ে উঠা এসব কথিত দাঁতের ডাক্তারের চেম্বারে এমনকি স্টেরিলাইজেশন কিংবা অটোক্ল্যাপ মেশিনও নেই। ফলে রোগীরা দাঁতের চিকিৎসা করাতে এসে ট্রান্সমিশন ডিজিসের শিকার হয়ে হেপাটাইসিস বি ও সি-তে আক্রান্ত হন।’

বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিলে (বিএমডিসি) নিবন্ধিত চট্টগ্রামের চিকিৎসক ডা. খোরশেদুল ইসলাম চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘যারা বিএমডিসি কর্তক নিবন্ধিত চিকিৎসক, তারাই ডেন্টিস্ট। অলিগলির এসব কথিত ডেন্টিস্টের কোনো লাইসেন্সও নেই। কথিত এই ডাক্তারদের কাছে গিয়ে রুট ক্যানেলের পর ইনফেকশন হয়, মাড়ি ফুলে যায়। অনেক সময় ক্ষত স্থান থেকে রোগীর দাঁতে ক্যান্সারেরও সৃষ্টি হয়।’

ডেন্টিস্ট্রি পড়ানো হয় শুধু ৩৫ টি ডেন্টাল কলেজ/মেডিকেল কলেজ ডেন্টাল ইউনিটে

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে চারটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় – ঢাকা, রাজশাহী, চট্টগ্রাম, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এর চিকিৎসা অনুষদে ডেন্টিস্ট্রি অধিভুক্ত আছে। যার অধীনে বাংলাদেশের ৯টি সরকারি ও ২৬টি বেসরকারি ডেন্টাল কলেজ/ মেডিকেল কলেজ ডেন্টাল ইউনিটে ব্যাচেলর অব ডেন্টাল সার্জারী (বিডিএস) পড়ানো হয়। বিডিএস ডিগ্রী অর্জনের পর প্র্যাকটিস করার জন্য বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিল থেকে সনদ নিতে হয়। এর জন্য সফলভাবে ইন্টার্নশিপ সম্পন্ন করতে হয়।

চট্টগ্রাম প্রতিদিন থেকে পরিমার্জিত

Continue Reading

ঢাকা

সাফেনা উইমেন্স ডেন্টাল কলেজে Intern Induction Program 21

নিজস্ব প্রতিনিধি

Published

on

Dental Times

সাফেনা উইমেন্স ডেন্টাল কলেজে আজ পহেলা ফেব্রুয়ারী নবীন ইন্টার্ন চিকিৎসকদের জন্য Intern Induction Program-2021 আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলেজটির অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ আক্কাস আলী ও নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম রবি।

Dental Times

আয়োজনে আরো উপস্থিত ছিলেন পরিচালক এবং কোর্স কো-অর্ডিনেটর ডাঃ মাহমুদুর রহমান পিয়াল । সার্বিক তত্বাবধায়নে ছিলেন অর্থডোন্টিকস এবং অর্থপেডিক্স বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডাঃ নুরুল ইসলাম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন ডাঃ আতোকিয়া লাবিবা,ডাঃ জান্নাতুল ফেরদৌস মুন,ডাঃ মালিহা জাহিন এবং ডাঃফারহানা রিয়া।

এছাড়া অনুষ্ঠানে ডেন্টাল ইউনিটের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ, সাফেনা উইমেন্স ডেন্টাল কলেজের সকল সদস্যবৃন্দ এবং নবীন ইন্টার্ন চিকিৎসকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তারা নবীন ইন্টার্ন চিকিৎসকদের অভিনন্দন জানান ও উত্তোরত্তর সাফল্য কামনা করেন।

অধ্যাপক ডাঃ আক্কাস আলী ইন্টার্ন চিকিৎসকদের শপথ পাঠ করান। পরবর্তীতে নবীন ইন্টার্নদের মাঝে সৌজন্যমূলক উপহার ও ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান, এবং দুপুরের খাবার বিতরনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের পরিসমাপ্তি ঘটে।

Continue Reading

ঢাকা

মাথা ও গলার ক্যান্সারজনিত রোগ নিয়ে ডিডিসিতে ওএমএস হ্যান্ডস অন প্রোগ্রাম

নিজস্ব প্রতিনিধি

Published

on

মাথা ও গলার ক্যান্সারজনিত রোগ নিয়ে ডিডিসিতে ওএমএস হ্যান্ডস অন প্রোগ্রাম
ফাইরুজ হাফিজা হুমা

গত ৩ জানুয়ারি হতে ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত ঢাকা ডেন্টাল কলেজ হাসপাতাল ‘ওএমএস বিভাগে’ অনুষ্ঠিত হয়েছে ওরাল এন্ড ম্যাক্সিলোফ্যাসিয়াল হেন্ডস অন প্রোগ্রাম ২০২১। প্রতিদিন ১২-১৪ ঘন্টার হ্যান্ডস অন প্রোগ্রামটি ছিলো মাথা ও গলার ক্যান্সারজনিত রোগ নিয়ে। যার আলোচ্য বিষয় ছিলো ‘হ্যাড আন্ড নেক ক্যান্সার: অবল্যাটিভ আন্ড রিকন্সট্রাকটিভ সার্জারি।

ঢাকা ডেন্টাল কলেজের পোস্টগ্রাজুয়েট ট্রেনিং ছাত্রছাত্রী সহ অন্যান্য আরো ৪টি ডেন্টাল কলেজের পোস্টগ্রাজুয়েট ট্রেনিং ছাত্রছাত্রীরাও উপস্থিত ছিলেন। প্রগ্রামটি পরিচালিত হয় ফরেইন ট্রেনিং ইউং, এ.মই এন্ড এইচ.এম.ই, ডি.জি.এম, ঢাকা,বাংলাদেশের পক্ষ থেকে। ওএমএস হ্যান্ডস অন প্রোগ্রামটিতে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা ডেন্টাল হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ জাহিদুর রাহমান , প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন ডিরেক্টর জেনারেল অব মেডিকেল এডুকেশন এর অধ্যাপক ডাঃ নাজমুল ইসলাম , বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন ডিজিএইচএস এর পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ আব্দুল কালাম বেপারী , ঢাকা ডেন্টাল কলেজের অধ্যক্ষ ও বাংলাদেশে ডেন্টাল সোসাইটির মহাসচিব অধ্যাপক ডাঃ হুমাইয়ুন কবির বুলবুল, ডিরেক্টর ডেন্টাল এডুকেশন ডাঃ মো.মোসাররেল হোসেন খন্দকার

এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন কলেজটির ওএমএস বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডাঃ ইসমত আরা হালদার , ডা.নাদির উদ্দিন মিঠু (প্রোগ্রাম ম্যানেজার, ফরেইন ট্রিনিং উইং, মেডিকেল এডুকেশন), ডাঃ মোস্তাফা কামাল পাশা (ডিপুটি ম্যানেজার,ফরেইন ট্রেনিং উইং, মেডিকেল এডুকেশন) । রিসোর্স পার্সোন হিসেবে ছিলেন অধ্যাপক ডাঃ রুহুল আমিন ও অধ্যাপক ডাঃ ইসমত আরা হালদার, ডাঃ তারিন রহমান ও ডা.মো.হারুন-আলা-রাসিদ ।

ইন্টারন্যাশনাল ফ্যাকাল্টি তে ছিলেন ভারতের ওরাল এন্ড ম্যাক্সিলোফ্যাসিয়াল সার্জন ডাঃ সতিস কুমার পি , প্লাস্টিক সার্জন ডাঃ কিরন জ্যা । ফোকাল পার্সন ছিলেন : ডা.মোর্সেদ আলম তালুকদার। পুরো আয়োজনটি কো-অরডিনেট করেছেন ঢাকা ডেন্টাল কলেজের প্যারিওডন্টোলজি এন্ড ওরাল প্যাথলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ অনুপম পোদ্দার ।

Continue Reading

Campus News

ঢামেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আগুন নিয়ন্ত্রণে

নিজস্ব প্রতিনিধি

Published

on

Dental Times

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) জরুরি বিভাগে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নেভাতে ফায়ার সার্ভিসের ৩টি ইউনিট কাজ করে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এই অগ্নিকাণ্ড ঘটে। 

ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, ঢাকা মেডিকেলের পুরাতনের ভবনের ৪র্থ তলায় দুপুর পৌনে ২টায় এ আগুন লাগে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, সিগারেটের ধোঁয়া থেকে ওই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে।

দুপুর সোয়া ২টার দিকে শাহবাগ থানা ওসি মোহাম্মদ মামুন অর রশীদ বলেন, ফায়ার সার্ভিসের ৩টি ইউনিট কাজ করে আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছে।

Dental Times

ফায়ার সার্ভিসের সদরদপ্তরের ডিউটি অফিসার এরশাদ হোসেন এ তথ‌্য নিশ্চিত করেছেন। তবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, দুপুরে জরুরি বিভাগের চতুর্থ তলায় আগুন লাগে। সেখানে দুটি ব্লকের প্রতিটিতে ১৮ জন করে রোগী ছিলেন। আগুন লাগার পর তাদের সেখানে থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে কি না তা জানা যায়নি। ঘটনার পর হাসপাতালের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সেখানে যান। আগুন লাগার কারণ খতিয়ে দেখা হবে বলে তারা জানান।

Continue Reading

Campus News

SSMC dental unit arranged CME PROGRAM 2020

DENTALTIMESBD.com

Published

on

SSMC dental unit arranged CME PROGRAM 20
Ayesha Siddika

CME PROGRAM-2020, about “Predictable Implant Surgery: Standard of Care in Dentistry For Replacing Missing Tooth” was organized by Sir Salimullah Medical College Dental Unit on 30-12-2020 on online platform via zoom App.

On this the Speaker was Dr. Syed Atiqur Rahman, Chairperson was principal of Sir Salimullah Medical College Md. Nurul Hooda Lanin , Co-Chairperson was Head of SSMC Dental unit Dr. Md. Aminul Islam & many respectable teachers of Sir Salimullah Medical College & final year students were also present.

On this wonderful program Dr. Syed Atiqur Rahman had performed his presentation on Implant Surgery excellently. He was praised cordially by many respectable ones on this program.

Continue Reading
নর্থ ইস্ট মেডিকেল ডেন্টাল ইউনিটে ২য় ব্যাচের ইন্টার্ন শুরু
শিক্ষাঙ্গন2 days ago

নর্থ ইস্ট মেডিকেল ডেন্টাল ইউনিটে ২য় ব্যাচের ইন্টার্ন শুরু

Dental Times
Dental Admission5 days ago

বিডিএস ভর্তি পরীক্ষা ৩০ এপ্রিল

অধ্যাপক ড. সমীর কুমার সাহা
অর্জন6 days ago

গবেষণায় একুশে পদক পাচ্ছেন অধ্যাপক ড. সমীর কুমার সাহা

সমাজসেবায় একুশে পদক পাচ্ছেন অধ্যাপক ডাঃ কাজী কামরুজ্জামান
অর্জন6 days ago

একুশে পদক পাচ্ছেন অধ্যাপক ডাঃ কাজী কামরুজ্জামান

Dental Times
Dental Admission1 week ago

এপ্রিলের আগে ভর্তি পরীক্ষা নয় : ৩০ এপ্রিল ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষা প্রস্তাব

Dental Times
জাতীয়1 week ago

উত্তরাধিকার বলে মামার পর ‘ভাগ্নে’ও এখন চিকিৎসক !

Dental Times
জাতীয়1 week ago

শিক্ষার দক্ষতা যাচাইয়ে ফ্রেমওয়ার্কের অনুমোদন দিল মন্ত্রণালয়

Dental Times
শিক্ষাঙ্গন1 week ago

খুলনায় শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের বিল পাস

Dental Times
ঢাকা1 week ago

সাফেনা উইমেন্স ডেন্টাল কলেজে Intern Induction Program 21

Dental Times
করোনা পরিস্থিতি2 weeks ago

১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি

Dental Times
জাতীয়2 weeks ago

বিএসএমএমইউতে টিকা নিলেন প্রতিমন্ত্রী সহ ১২৫ জন

Dental Times
পড়ালেখা2 weeks ago

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অনুমোদনে ৪৩তম বিসিএসে আবেদন করা যাবে

Dental Times
জাতীয়2 weeks ago

বিএসএমএমইউতে প্রথম টিকা নিলেন উপাচার্য

Dental Times
জাতীয়2 weeks ago

ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি স্কুল-কলেজ খোলা হবে : শিক্ষামন্ত্রী

Dental Times
জাতীয়2 weeks ago

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে লিগ্যাল নোটিশ

Dental Times
ফিচার2 weeks ago

দাঁত ব্যথা : নিদারুণ এক যন্ত্রণার ইতিহাস

Dental Times
আন্তর্জাতিক3 weeks ago

বাংলাদেশে কোভ্যাক্সিনের পরীক্ষা চালাতে চায় ভারত: রয়টার্স

Dental Times
করোনা পরিস্থিতি3 weeks ago

প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার চিঠি

Dental Times
আন্তর্জাতিক4 weeks ago

দিল্লিতে করোনা টিকায় ৫২ জনের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

Dental Times
শিক্ষাঙ্গন4 weeks ago

স্যাসমেক ডেন্টাল ইউনিটে Intern Induction Program আয়োজন

Dental Times
ঢাকা1 week ago

সাফেনা উইমেন্স ডেন্টাল কলেজে Intern Induction Program 21

Dental Times
জাতীয়1 week ago

উত্তরাধিকার বলে মামার পর ‘ভাগ্নে’ও এখন চিকিৎসক !

অধ্যাপক ড. সমীর কুমার সাহা
অর্জন6 days ago

গবেষণায় একুশে পদক পাচ্ছেন অধ্যাপক ড. সমীর কুমার সাহা

Dental Times
Dental Admission5 days ago

বিডিএস ভর্তি পরীক্ষা ৩০ এপ্রিল

সমাজসেবায় একুশে পদক পাচ্ছেন অধ্যাপক ডাঃ কাজী কামরুজ্জামান
অর্জন6 days ago

একুশে পদক পাচ্ছেন অধ্যাপক ডাঃ কাজী কামরুজ্জামান

Dental Times
জাতীয়1 week ago

শিক্ষার দক্ষতা যাচাইয়ে ফ্রেমওয়ার্কের অনুমোদন দিল মন্ত্রণালয়

Dental Times
Dental Admission1 week ago

এপ্রিলের আগে ভর্তি পরীক্ষা নয় : ৩০ এপ্রিল ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষা প্রস্তাব

Dental Times
শিক্ষাঙ্গন1 week ago

খুলনায় শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের বিল পাস

নর্থ ইস্ট মেডিকেল ডেন্টাল ইউনিটে ২য় ব্যাচের ইন্টার্ন শুরু
শিক্ষাঙ্গন2 days ago

নর্থ ইস্ট মেডিকেল ডেন্টাল ইউনিটে ২য় ব্যাচের ইন্টার্ন শুরু

Advertisement

সম-সাময়িক

Enable Notifications From DentalTimesBD    OK No thanks