Connect with us

শিক্ষাঙ্গন

সিআইএমসিতে বিশ্ব অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল সচেতনতা সপ্তাহ পালন

Published

on

Dental Times

চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ ও চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনাল ডেন্টাল কলেজের উদ্যেগে সপ্তাহব্যাপী পালিত হচ্ছে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স সচেতনতা। সপ্তাহ পালন উপলক্ষে গতকাল সোমবার সিআইএমসিএইচ ও সিআইডিসিএইচের উদ্যোগে বৈজ্ঞানিক সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

সকাল থেকে কলেজ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত বৈজ্ঞানিক সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম ইন্টান্যাশনাল ডেন্টাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা: মো: মুসলিম উদ্দিন। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ফার্মাকোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা: ফাতিহা তাসমিন জিনিয়া। সেমিনারে কো-চেয়ার ছিলেন ফার্মাকোলজি বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডা: এ জেড এম আশেক-ই-ইলাহি। বিশেষজ্ঞ প্যানেলে উপস্থিত ছিলেনÑসার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডা: মোখলেসুর রহমান, চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনাল ডেন্টাল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা: মো: আলী হোসাইন ।

মূল প্রবন্ধকার তার বক্তব্যে বলেন, প্রতি বছরের মতো এই বছরেও বিশ্ব অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স সচেতনতা সপ্তাহ ২০২১ পালিত হচ্ছে বিশ্বজুড়ে। এই বছরের সেøাগান ‘হোক সচেনতার বিস্তার, চাই অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স থেকে নিস্তার’। ডব্লিউএইচওর তথ্যানুযায়ী প্রতি বছর অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্সের (্এএমআর) কারণে সব দেশের ধনী, গরিব, নারী-পুরুষ, শিশু, বৃদ্ধ নির্বিশেষে প্রায় সাত লাখ মানুষ মারা যাচ্ছে। আমাদের হাতে অ্যান্টিবায়োটিক আছে; কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই কাজ করছে না শুধু রেজিস্ট্যান্সের জন্য। অনেক রোগী বিশেষ করে আইসিইউয়ের রোগীদের অনেকেই মারা যাচ্ছেন অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্সের জন্য। বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন, ২০৫০ সালনাগাদ এএমআরের কারণে পৃথিবীব্যাপী প্রতি বছর অতিরিক্ত ১০ লাখ ১৭ হাজার ৬০০ কোটি টাকা স্বাস্থ্য খাতে খরচ হবে।

আমি, আপনি বা আমাদের পরিবারের যে কেউ এএমআরের ভয়াবহ পরিণতির শিকার হতে পারি। আমরা হয়তো একটা প্রজন্ম রেখে যাচ্ছি যারা ছোট ইনফেকশনের জন্যও কোনো কার্যকরী অ্যান্টিবায়োটিক পাবে না। সুতরাং এএমআরের ভয়াবহতা সম্পর্কে সবার মধ্যে সচেতনতা জরুরি। সামান্য জ্বর, সর্দি, কাশি বা ভাইরাল ইনফেকশনের জন্য অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই উল্লেখ করে সেমিনারে কোনো রকম ফার্মেসি বা ডিসপেনসারির লোকের কথায় অ্যান্টিবায়োটিক না খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। এতে বলা হয়, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, সাবান দিয়ে হাত ধোয়া এবং ফুটানো পানি পান করা অনেকাংশেই ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ রোধ করে এবং ইনফেকশন থেকে রক্ষা করে।

পরে সেমিনারে এএমআরের প্রভাবও সচেতনতা নিয়ে হাসপাতালে প্রাপ্ত কেসগুলোর আলোকে ছবিভিত্তিক প্রেজেন্টেশন প্রদান করেন চর্মরোগ বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডা: শামিম আরা।

Advertisement
Click to comment

জাতীয়

ভয়াবহ শিক্ষক সংকটে শেবামেক ডেন্টাল ইউনিট: ৩৮ পদে কর্মরত ৬

Published

on

Dental Times

নজিরবিহীন শিক্ষক সংকটে বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ ডেন্টাল ইউনিট দক্ষিণাঞ্চলের ডেন্টাল চিকিৎসা বিদ্যার একমাত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি । শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে ৩৮জন সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষক পদের বিপরীতে বর্তমানে মাত্র ৪ জন কর্মরত আছেন। এর বাইরে আরো দুজন ওএসডি শিক্ষককে এখানে নিয়োগ দেয়া হলেও অনুমোদিত ৩৮ শিক্ষকের মধ্যে ৩২টিতেই কোন জনবল নেই। ফলে এখানে ছাত্র-ছাত্রীদের লেখাপড়ার মান সহ শের-এ-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডেন্টাল ইউনিটে চিকিৎসা ব্যবস্থাও অনেকটাই সংকটাপন্ন। অথচ ঢাকা ডেন্টাল কলেজ সহ রাজধানীর বিভিন্ন ডেন্টাল ইউনিটে একটি পদের বিপরিতে একাধীক শিক্ষক-চিকিৎসক কর্মরত আছেন বলে জানিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ছাত্রছাত্রীরা।

অথচ প্রতিবছর শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজের ডেন্টাল ইউনিটে ৫০ জন ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে এখান থেকে ৫টি ব্যাচে বিপুল সংখ্যক ছাত্রছাত্রী বিডিএস পাস করে বের হয়েছে। কিন্তু শিক্ষক স্বল্পতায় একজনকেই একাধীক বিষয়ে পাঠদান করতে গিয়ে নানামুখি সংকট তৈরী হচ্ছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। এমনকি একারণে একদিকে শিক্ষার্থীরা যেমনি অনেক বিষয়ে সঠিক জ্ঞান আহরন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, তেমনি হাসপাতালটির রোগীরাও সুষ্ঠ চিকিৎসা সেবা না পাবারও অভিযোগ রয়েছে।

দক্ষিণাঞ্চলে দন্ত চিকিৎসা বিদ্যার একমাত্র এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির সাইন্স অব ডেন্টাল মেটারিয়ালস, ডেন্টাল ফার্মাকোজী, পেরিওডন্টোলজী, ওরাল মাইক্রোবায়োলজী, ওরাল সার্জারী, প্রস্থোডন্টিক্স এবং ডেন্টাল রেডিওলজী বিভাগে সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষক সহ কোন শিক্ষকই নেই। এছাড়া ডেন্টাল পাবলিক হেলথ বিভাগে একজন প্রভাষক থাকলেও কোন সহকারী অধ্যাপক নেই।

ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারী ও কনজারভেটিব ডেন্টিস্ট্রি বিভাগে সহকারী অধ্যাপক থাকলেও কোন প্রভাষক নেই। পেডিয়াট্রিক ডেন্টিস্ট্রি বিভাগে একজন প্রভাষক থাকলেও কোন সহকারী অধ্যাপক নেই। এমনকি ডেন্টাল জুরিস্ট ল এন্ড ইথিক্স বিভাগের একমাত্র প্রভাষক পদেও কোন শিক্ষক নেই।

এ ব্যাপারে বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ মুনিরুজ্জামান শাহিন-এর সাথে আলাপ করা হলে তিনি কলেজের ডেন্টাল শাখায় শিক্ষক সংকটের কথা স্বীকার করে বলেন, আমরা বিষয়টি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও মন্ত্রনালয়কে অবহিত করে নিয়মিতভাবেই যোগাযোগ রাখছি। উচ্চ পর্যায় থেকেও চেষ্টা চলছে এখানে শূণ্য পদগুলো পুরন করার। তিনি আগামী মাস ছয়েকের মধ্যে কিছু শূণ্য পদ পুরনেরও আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

তবে এ ডেন্টাল ইউনিটের সাথে সংযুক্ত শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও এ পর্যন্ত মাত্র ৮ বেডের একটি ইউনিট চালু থাকায় সেখানে যেমনি পর্যাপ্ত চিকিৎসা সুবিধা সৃষ্টি করা যায়নি। তেমনি চিকিৎসক সংকটেও ভর্তিকৃত রোগীরা সুষ্ঠ চিকিৎসা পাচ্ছেন না। উপরন্তু ডেন্টাল ইউনিটের ছাত্র-ছাত্রীরাও হাতে কলমে চিকিৎসা শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। একাধীক ছাত্র-ছাত্রী অবিলম্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে শিক্ষক সংকট দুর করার পাশাপাশি হাসপাতালটিরে ডেন্টাল ইউনিটটি ২৫ শয্যায় উন্নীতকরন সহ এখানে অত্যাধুনিক ডেন্টাল ইকুইপমেন্ট স্থাপনেরও দাবী জানিয়েছেন।

দৈনিক ইনকিলাব থেকে পরিমার্জিত

Continue Reading

Campus News

দুই দিন ব্যাপী সিডিসি এলামনাই এর ওয়েবসাইট উদ্বোধন ও সেমিনার আয়োজিত

Published

on

Dental Times

নিউজ ডেস্কঃ গত ৩০ ও ৩১শে অক্টোবর সিটি ডেন্টাল এলামনাই এসোসিয়েশন আয়োজিত নিজস্ব ওয়েবসাইট (www.citydentalalumni.com) উদ্ভোধন ও কক্সবাজারের আন্তর্জাতিক মানের হোটেল গ্রেস কক্স স্মার্ট হোটেলে ন্যাশনাল সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। এলামনাই এসোসিয়েশন এর মাননীয় প্রধান উপদেষ্টা ডাঃ এ.এস এম বদরুদ্দোজাকে প্রধান অতিথি করে উক্ত অনুষ্ঠানে এলামনাই এর অন্যান্য উপদেষ্টাগণ ও প্রায় ১৭৫ জন সদস্য ও অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে এলামনাই এসোসিয়েশন এর সভাপতি ডাঃ প্রদ্যুত কুমার সাহা ও সাধারণ সম্পাদক ডাঃ নাজমুল হাসান চৌধুরী তাদের বিগতদিনের কার্যক্রম, ভবিষ্যতে তাদের মিশন ও ভিশন নিয়ে আলোচনা করেন। উক্ত অনুষ্ঠানে ডেন্টাল সার্জারীর বিভিন্ন বিষয়ের উপর সেমিনার উপস্থাপন ও সিডিসি এলামনাই এসোসিয়েশন এর নিজস্ব ওয়েবসাইট উদ্ভোধন করা হয়। দুইদিনব্যাপি অনুষ্ঠানে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বার বি কিউ পার্টি ও খেলাধুলার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের পরিসমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

ছবিতে বিস্তারিতঃ

Continue Reading

শিক্ষাঙ্গন

ডেন্টিস্ট সম্পর্কে প্রচলিত ধারণা বনাম বাস্তবতা

Published

on

Dental Times

ডেন্টিস্ট সম্পর্কে প্রচলিত ধারণা বনাম বাস্তবতা … … …

★ শুনলাম ডেন্টালে ভর্তি হইসো!
☞ হ্যাঁ। ইচ্ছা ছিল ডাক্তার হওয়ার। আব্বু আম্মুরও ইচ্ছা। দোয়া করবেন।

★ হ্যাঁ, তা করবো। কিন্তু, ডাক্তার তো হবা না। ডেন্টিস্ট হবা। ডেন্টিস্ট আবার ডাক্তার হয় ক্যামনে? 🤔
☞ গায়নেকলজিস্ট, কার্ডিওলজিস্ট, নিউরোলজিস্ট এরা ডাক্তার কিভাবে ? 🐸

★ হে হে ৷ তোমাদের তো সারা বছর ধইরা খালি দাঁতই পড়ায়। দাঁতের ডাক্তারের আবার অত পড়া কি? পড়া তো মেডিকেলে। 🤔
☞ চার-পাঁচ বছর দাঁতের সাথে মানবদেহ, মানবদেহের স্বাভাবিক অস্বাভাবিক আচরণ, অসুখ বিসুখ, ওষুধপত্র প্রায় সবই পড়ানো হয় ডেন্টিস্ট্রি তে। বরং প্রতিটা ইয়ারেই যুক্ত আছে এমন কিছু সাবজেক্ট, যেগুলো মেডিকেলেও পড়ায় না। 🐸

★ দাঁতের ডাক্তার। দাঁত খুঁচাইয়া, দাঁত তুইলাই সব টাকা নিয়া যাইবা ! 🤑
☞ দাঁতের ডাক্তার শুধু দাঁতই তোলে না। দাঁত ছাড়াও মুখের সার্জারি, অপারেশন ও করে থাকে। এর জন্য আলাদা একটা বিভাগও আছে। ওরাল অ্যান্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারি। আর ভাল কাজ না জানলে ডাক্তারেরও ইনকাম নাই! 🐸

★ তোমাদের দাঁতের ডাক্তার তো দেখি আবার কান্ধে বিপির মেশিন লইয়া ঘুরে! 😆
☞ হ্যাঁ। কারণ, এই বিপির মেশিন ডেন্টিস্ট ব্যবহার না করলে, হাইপ্রেশারের রোগীরা ছোটো খাটো লোকাল অ্যানেস্থেশিয়ায় অক্কা পেত! আর আপনারা ডাক্তারকে একা পেয়ে উত্তম মধ্যম দিয়ে মহাপূণ্যের কাজ করে সাংবাদিক ডাক্তারদের খবর দিতেন! 🐸

★ যা হউক, বিসিএস টা দিয়া দিও। সরকারি চাকরি হলেই তো টাকা!!! 🤑
☞ সেটা যার যার ইচ্ছা! আমার ইচ্ছা নাই। আমার সাবজেক্টেই জ্ঞান অর্জন করতে চাই। 🐸

★ বিদেশ যাইবা না ডিগ্রি আনতে?
☞ আল্লাহ জানেন। বাট, গেলেও পরে আবার ভ্রু কুঁচকে বলবেন না যেন!

★ “দেশের খেয়ে দেশের পড়ে, মেধা পাচার করছে।” 😒
☞ কারণ দেশের টাকায় পড়া ডাক্তার ইন্টার্নির সময়ই জনগণের টাকা পয়সা পুষিয়ে দেয়। আর আমার মত অনেকেই বাবার পয়সায় বেসরকারিতে পড়ে। জনগণের টাকায় না। আর মেধা পাচারের টাকাটাই বৈদেশিক মুদ্রা হিসাবে দেশে ফিরে আসে!

★ আচ্ছা, ডাক্তার হও, ফ্রি চিকিৎসা দিবা।
☞ ছেলের বিয়ে তো ধুমধাম করে দিলেন, দশ লাখ টাকা কাবিন। ঢাকায় সুন্দর একটা ফ্ল্যাট আছে, রুমে এসি। টিভি, ফ্রিজ সবই আছে……

★ হ্যাঁ। তো???
☞ গরীবের কোটাটা কেন মারবেন তাহলে শুনি???

আরিফুর রহমান প্রান্ত, সিটি ডেন্টাল কলেজ

Continue Reading

Campus News

৫টি ডেন্টাল চেয়ার ক্রয়ে লুট পৌনে ২ কোটি টাকা

Published

on

Dental Times

পাঁচটি ডেন্টাল চেয়ার কেনার নামে প্রায় ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে রংপুর মেডিকেল কলেজের (রমেক) সাবেক অধ্যক্ষ ও এক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) দুদকের রংপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক রাকিবুল হায়াত বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। দুদক সচিব মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২০১৩ সালে ২ কোটি ৮২ লাখ টাকায় পাঁচটি ডেন্টাল চেয়ার ও চেয়ারের এক্সেসরিজ কেনে রংপুর মেডিকেল কলেজ। 

কিন্তু বাজার বিশ্লেষণ ও বিশেষজ্ঞদের তথ্যের ভিত্তিতে দেখা গেছে, প্রকৃত বাজারমূল্যের চেয়ে ১ কোটি ৭৪ লাখ ৯৬ হাজার ৫০০ টাকা বেশি দামে এ কেনাকাটা করা হয়েছিল। তৎকালীন অধ্যক্ষ ডা. আব্দুর রউফ ও ঠিকাদার মোহাম্মদ মোকছেদুল ইসলাম চেয়ার কেনার নামে প্রতারণা ও জাল জালিয়াতির মাধ্যমে ওই টাকা আত্মসাৎ করেন।

যেখানে ক্রয় পরিকল্পনা, বাজারদর যাচাই, অফিসিয়াল প্রাক্কলন প্রস্তুত, টেন্ডার ওপেনিং কমিটি ও কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি গঠনসহ প্রভৃতি শর্তাদি পালন করা হয়নি বলে দুদকের অনুসন্ধানে দেখা গেছে।  আর এই ক্রয়ের ভাউচার দেয় থ্রি আই মার্চেন্ডাইজের মালিক মোকসেদুল ইসলাম।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২০১৩ সালে ২ কোটি ৮২ লাখ টাকায় পাঁচটি ডেন্টাল চেয়ার ও চেয়ারের এক্সেসরিজ কেনে রংপুর মেডিকেল কলেজ। কিন্তু বাজার বিশ্লেষণ ও বিশেষজ্ঞদের তথ্যের ভিত্তিতে দেখা গেছে, প্রকৃত বাজারমূল্যের চেয়ে ১ কোটি ৭৪ লাখ ৯৬ হাজার ৫০০ টাকা বেশি দামে এ কেনাকাটা করা হয়েছিল। তৎকালীন অধ্যক্ষ ডা. আব্দুর রউফ ও ঠিকাদার মোহাম্মদ মোকছেদুল ইসলাম চেয়ার কেনার নামে প্রতারণা ও জাল জালিয়াতির মাধ্যমে ওই টাকা আত্মসাৎ করেন। যেখানে ক্রয় পরিকল্পনা, বাজারদর যাচাই, অফিসিয়াল প্রাক্কলন প্রস্তুত, টেন্ডার ওপেনিং কমিটি ও কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি গঠনসহ প্রভৃতি শর্তাদি পালন করা হয়নি বলে দুদকের অনুসন্ধানে দেখা গেছে।  

আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯/১০৯/৪২০/৪৬৫/৪৬৭/৪৬৮/৪৭১ ধারা এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫ (২) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

এর আগেও ২০১৯ সালের ১২ সেপ্টেম্বর যন্ত্রপাতি ক্রয় দেখিয়ে সরকারের সাড়ে ৪ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে রংপুর মেডিকেল কলেজের তৎকালীন অধ্যক্ষ ডা. মো. নুর ইসলাম ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছিল দুদক। ওই মামলার এজাহারেও অধ্যক্ষ ডা. মো. নুর ইসলাম কর্তৃক বিধিবহির্ভূত ভাবে বিভিন্ন কমিটি গঠন ও যথাযথ চাহিদা ব্যতীত স্পেসিফিকেশন ছাড়াই পছন্দের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বেঙ্গল সায়েন্টিফিক অ্যান্ড সার্জিক্যাল কোম্পানিকে কার্যাদেশ প্রদান করার মাধ্যমে সরকারের ৪ কোটি ৪৮ লাখ ৮৯ হাজার ৩০০ টাকা টাকা লুটপাট হওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছিল।

Continue Reading

ঢাকা

ইউনিভার্সিটি ডেন্টাল কলেজের ২৫ বছর পূর্তি

Published

on

UDC 25th years Celebration
UDC 25th years Celebration
UDC 25th years Celebration
UDC 25th years Celebration (2)
UDC 25th years Celebration
UDC 25th years Celebration
UDC 25th years Celebration UDC 25th years Celebration UDC 25th years Celebration UDC 25th years Celebration (2) UDC 25th years Celebration UDC 25th years Celebration

আজ ইউনিভার্সিটি ডেন্টাল কলেজের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে জমকালো “ডেন্টাল সামিট ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান” অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকার রেডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে দিনভর বিভিন্ন আয়োজনে সবার স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ চোখে পড়ার মতো ছিল।

সকাল ১০ টা থেকে “হ্যান্ডস অন” কোর্স শুরু হয় ডা. অমিত জানে এর তত্ত্ববধায়নে, তবে মূল পর্ব শুরু হয় দুপুর ২ টা থেকে। “ডেন্টাল সামিট” যত টা না ছিল তার চেয়ে দিনটি ছিল নবীন-প্রবীণদের মিলন মেলা। উক্ত অনুষ্ঠানের শুভ কামনা করে ভিডিও বার্তায় বক্তব্য রাখেন মাননীয় স্বাস্থ্যমন্রী জাহিদ মালেক এম পি, এছাড়াও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ডেন্টাল সোসাইটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. আবুল কাশেম, মহাসচিব ও ঢাকা ডেন্টাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. হুমায়ূন কবির বুলবুল স্যার, ঢাকা ডেন্টাল কলেজের প্রথম ব্যাচের ছাত্র ও ইউডিসির সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোজাম্মেল হোসেন সহ বিভিন্ন ব্যাক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানটির সার্বিক তত্ত্বাবধায়নের নেতৃত্বে ছিলেন ইউডিসির সম্মানিত চেয়ারম্যান ডা. ওয়াহিদুজ্জামান।

সূচনা বক্তব্যের পর বেলা ৩টায় থেকে শুরু হয় “সায়েন্টিফিক সেশন।” সেখানে প্রেজেন্টেশন করেন অধ্যাপক ডা. মো. জাকির হোসেন এবং ডা. আশউইনি ভালেরাও, অতঃপর পোস্টার ও পোডিয়াম প্রেজেন্টেশন এর পুরস্কার বিতরণী পর্ব হয় এবং তা সমাপনী হয় ইউডিসি অ্যালুমনাই অ্যাসোসিয়েশনের বক্তব্যের মাধ্যমে।

সর্বশেষ জমকালো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সবাইকে মাতিয়ে তুলে “ঈগল ড্যান্স গ্রুপ” এবং বিশেষ আকর্ষণে ছিলেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী আঁখি আলমগীর ও স্বপ্নীল সজীব। উক্ত অনুষ্ঠানের টাইটেল স্পনসর হিসেবে ছিল মেডিপ্লাস এবং সবসময়ের মতো এবার ও তারা রাফেল ড্র আয়োজন করেছিল।

Continue Reading
Dental Times
জাতীয়47 mins ago

‘ওমিক্রন’ কেন বিপজ্জনক? এর উপসর্গ কী কী?

Dental Times
করোনা পরিস্থিতি1 hour ago

ওমিক্রন ঠেকাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১৫ দফা নির্দেশনা

Dental Times
জাতীয়14 hours ago

সরকারি ডেন্টালে ৪৭ আসন ফাঁকা

Dental Times
আন্তর্জাতিক4 days ago

মিয়ানমারে ১৪ চিকিৎসাকর্মী গ্রেপ্তার

Dental Times
ছবি ও গল্প6 days ago

অভিনেত্রী ডাঃ বাঁধনকে নিয়ে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ দেখলেন ডেন্টাল সার্জনবৃন্দ

Dental Times
শিক্ষাঙ্গন6 days ago

সিআইএমসিতে বিশ্ব অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল সচেতনতা সপ্তাহ পালন

Dental Times
জাতীয়6 days ago

আপিল নিষ্পত্তির আগে ডেন্টাল টেকনোলজিস্টদের প্রাকটিসের অনুমতি না দেওয়ার অনুরোধ

Dental Times
ফিচার1 week ago

ন্যানো ডেন্টিস্ট্রি

Dental Times
জাতীয়2 weeks ago

ভয়াবহ শিক্ষক সংকটে শেবামেক ডেন্টাল ইউনিট: ৩৮ পদে কর্মরত ৬

Dental Times
করোনা পরিস্থিতি3 weeks ago

মলনুপিরাভিরঃ কোভিডের ১ম মুখে খাওয়ার ঔষধ এখন বাংলাদেশে

চট্টগ্রামে পুর্ণাঙ্গ ডেন্টাল কলেজ স্থাপনের জন্য জমি পরিদর্শন
জাতীয়3 weeks ago

চট্টগ্রামে পুর্ণাঙ্গ ডেন্টাল কলেজ স্থাপনের জন্য জমি পরিদর্শন

Dental Times
Campus News4 weeks ago

দুই দিন ব্যাপী সিডিসি এলামনাই এর ওয়েবসাইট উদ্বোধন ও সেমিনার আয়োজিত

Dental Times
জাতীয়1 month ago

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে ১৭ নথি গায়েব, শাহবাগ থানায় জিডি

ডেন্টাল কলেজে ভর্তির আশ্বাসে প্রতারণা
জাতীয়1 month ago

ডেন্টাল কলেজে ভর্তির আশ্বাসে প্রতারণা, জবি ছাত্র গ্রেপ্তার

Dental Times
জাতীয়1 month ago

১১টি খাতে দুর্নীতির মহোৎসব স্বাস্থ্যখাতে

Dental Times
জাতীয়1 month ago

সেনাবাহিনীর দুই ডেন্টাল সেন্টারের পতাকা উত্তোলন

Dental Times
জাতীয়1 month ago

বিএমডিসি রেজিস্ট্রেশন পূর্বক ডেন্টিস্টরা যে কোথাও প্র্যাক্টিস করতে পারবে

Dental Times
জাতীয়2 months ago

স্কুলশিক্ষার্থীদের পরীক্ষামূলক করোনার টিকা দেওয়া শুরু

Dental Times
আন্তর্জাতিক2 months ago

উহানবাসীর রক্তের নমুনা পরীক্ষা করবে চীন

Dental Times
আন্তর্জাতিক2 months ago

করোনার উৎস সন্ধানে ‘শেষ সুযোগ’ ডব্লিউএইচওর

Advertisement

সম-সাময়িক

Subscribe for notification